গুরুংয়ের সঙ্গে বৈঠকের সম্ভাবনা, ‘নজরবন্দি’ দিলীপ ঘোষ

posted Oct 6, 2017, 7:52 AM by news reporter   [ updated Oct 6, 2017, 7:55 AM ]
Dilip Ghosh
মোর্চা সুপ্রিমো বিমল গুরুংয়ের ফোন পাওয়ার পরই তড়িঘড়ি সিকিম পৌঁছলেন দিলীপ ঘোষ। শুক্রবারই তাঁর সিকিম যাওয়ার কথা ছিল। কিন্তু একদিন আগেই পাহাড়ে নিগ্রহের শিকার হয়ে তিনি এখনই পাহাড় ছাড়বেন না বলে জানিয়েছিলেন। বিমল গুরুংয়ের একটা ফোনেই ফের সিদ্ধান্ত বদল করলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি। সিকিমে মোর্চা সুপ্রিমোর সঙ্গে বিজেপি রাজ্য সভাপতির বৈঠক করতে পারেন। সেই বৈঠকের দিকেই দৃষ্টি রাখছে রাজ্য প্রশাসন।

বিশেষ কর্মসূচি নিয়ে তিনি পড়শি রাজ্য সিকিমে যাবেন- তা চূড়ান্তই ছিল। কিন্তু তখন বিমল গুরুংয়ের সঙ্গে তাঁর বৈঠকের সম্ভাবনা তৈরি হয়নি। এমতো পরিস্থিতিতে তিনি সিকিমে গুরুংয়ের সঙ্গে বৈঠক করতে পারেন বলে মনে করছে রাজ্য প্রশাসন। সেই কারণেই রাজ্যের গোয়েন্দারা বিশেষ সতর্কতা অবলম্বন করেছেন। এই বৈঠক হলে গুরুংকে নাগালে নেওয়ার চেষ্টা করবে রাজ্য প্রশাসন। এদিন সকালেই দার্জিলিং ছেড়ে সিকিমের নামচির উদ্দেশ্যে রওনা দেন দিলীপ ঘোষ। সেখানে তাঁকে বিজেপির সিকিম রাজ্যের সভাপতি বাহাদুর চৌহান স্বাগত জানান। তার আগে বিমল গুরুংয়ের ফোন পেয়েছেন দিলীপ ঘোষ। তাঁর উপর নিগ্রহের ঘটনার তীব্র নিন্দা করেছেন মোর্চা সু্প্রিমো। সেইসঙ্গে তিনি বৈঠকের আহ্বান জানিয়েছেন বলে মনে করছে প্রশাসন। দিলীপ ঘোষ পাহাড়ে পা রেখেই বিনয় তামাংয়ের কঠোর সমালোচনা করেছিলেন।

বলেন, পাহাড়ের নেতা বিমল গুরুংই। তাঁর প্রতি আস্থায় বর্তমানে পাহাড়ছাড়া মোর্চা সু্প্রিমো অনেকটা আশ্বস্ত হন। তারপরই তিনি বার্তা দেন দিলীপ ঘোষকে পাহাড়ে স্বাগত জানাতে। কিন্তু স্বাগত জানানো তো দূর অস্ত, পাহাড়বাসীর বিক্ষোভের মুখে পড়তে হয় বিজেপি রাজ্য সভাপতিকে। শুধু বিক্ষোভই নয়, তাঁকে নিগ্রহ করা হয় বলেও অভিযোগ। এই ঘটনার তীব্র নিন্দা করেন বিমল গুরুং। তিনি ফোন করে দিলীপ ঘোষের সঙ্গে কথা বলেন। সেই ফোন ঘিরেই এখন যাবতীয় জল্পনা। সিকিমে দুই নেতা বৈঠক করতে পারেন বলেই মনে করছে প্রশাসন। দিলীপ ঘোষের পিছুও নেওয়া হয়েছে বলে সূত্রের খবর। এবার কোনওমতেই বিমল গুরুংকে হাতছাড়া করতে চাইছে না সিআইডি। সাদা পোশাকে সিআইডি-র তরফে দিলীপ ঘোষের সিকিম সফরকে নজরবন্দি করা হচ্ছে। তিনি কোথায় যাচ্ছেন, কার সঙ্গে কথা বলছেন, সত্যিই গুরুংয়ের সঙ্গে বৈঠকের সম্ভাবনা রয়েছে কি না, বৈঠক হলে তা কোথায় হবে, সবকিছু জানার চেষ্টা চালাচ্ছে ওই দল। গোপন ক্যামেরায় সবকিছু তুলে রাখছেন গোয়েন্দারা। তা নবান্নেও পাঠানো হচ্ছে প্রতিনিয়ত।

Source: oneindia,
Posted By: Sanjay Ghoshal
Comments